33th Bcs Written Questions-2012

বাংলা ১ম পত্র 

[দ্রষ্টব্য: প্রত্যেক প্রশ্নের মান প্রশ্নের শেষ প্রান্তে দেখানো হয়েছে।]

1.

(ক) বানান, শব্দ প্রয়োগ ও বিন্যাস, ভাষারীতি ইত্যাদি শুদ্ধ করে নিচের বাক্যগুলো পুনরায় লিখুনঃ

(১) এসব লোকগুলোকে আমি চিনি।
(২) তুমি আমার কাছে আরও প্রিয়তর।
(৩) শুধুমাত্র গায়ের জোরে কাজ হয় না।
(৪) তিনি নিরহঙ্কারী ও নিরপরাধী মানুষ।
(৫) সে গাছ হইতে অবতরণ করিল।
(৬) অচিরেই বাংলাদেশ একটি সমৃদ্ধশালী দেশে পরিণত হবে।
(৭) আসছে আগামীকাল কলেজ বন্ধ থাকবে।
(৮) তার দারিদ্র্যতায় কষ্ট পেয়েছি আর সৌজন্যতায় মুগ্ধ হয়েছি।
(৯) আমি অপমান হয়েছি।
(১০) ইতোমধ্যে গ্রামের সমস্ত লোকেরা সংবর্ধনা সভায় যোগ দিয়েছে।
(১১) নিরপরাধী লোক কাকেও ভয় করে না।
(১২) অপরাহ্ন লিখতে অনেকেই ভুল করে।

(খ) শূন্যস্থান পূরণ করুনঃ-

বিদ্যা মানুষের মূল্যবান…………, সে বিষয়ে সন্দেহ নাই। কিন্তু………….তদপেক্ষাও মূল্যবান। অতএব, কেবল বিদ্বান বলিয়াই কোন লোক………….. লাভেরযোগ্য বলিয়া বিবেচিত হইতে পারে না। চরিত্রহীন লোক যদি নানা…………..আপনার………পূর্ণ করিয়াও থাকে, তথাপি তাহার………….পরিত্যাগ করাই শ্রেয়।

 

(গ) ছয়টি পূর্ণ বাক্যে নিচের প্রবাদটির নিহিতার্থ প্রকাশ করুনঃ-

পুষ্প আপনার জন্য কোটে না।

 

(ঘ) নিচের শ্বদগুলো দিয়ে পূর্ণবাক্য রচনা করুনঃ-

সান্ত্বনা, ঊর্দ্ব, ধিক্কৃত, আশস, অচিন্ত্য, কটূক্তি।

 

(ঙ) নির্দেশানুযায়ী বাক্যগুলো রূপান্তর করুনঃ-

(১) শিক্ষক আমাকে উপদেশ দিলেন এবং বিদায় করলেন। (সরল বাক্য)
(২) যখন বিপদ আসে, তখন দুঃখও আসে। (যৌগিক বাক্য)
(৩) বিদ্বান লোক সর্বত্র আদরণীয়। (জটিল বাক্য)
(৪) সে যেমন কৃপণ তেমন চালাক। (যৌগিক বাক্য)
(৫) সে এমএ পাস করেছে বটে কিন্তু জ্ঞানলাভ করতে পারেনি। (জটিল বাক্য)
(৬) যখন বৃষ্টি থামলো, তখন আমরা স্কুলে রওনা হলাম। (যৌগিক বাক্য)

 

2. যে কোনো একটির ভাব-সম্প্রসারণ লিখুন (অনধিক ২০টি বাক্য):-

(ক) শৃঙ্খলিত সিংহের চেয়ে স্বাধীন গাধা উত্তম।
(খ) ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়।

 

3. সারমর্ম লিখুনঃ-

(ক) একদা ছিল না জুতা চরণযুগলে
দহিল হৃদয় মম সেই ক্ষোভানলে।
ঘীরে ধীরে চুপি চুপি দুঃখাকুল মনে
গেলাম ভজনালয়ে ভজন কারণে।
দেখি সেথা একজন পদ নাহি তার
অমনি জুতার খেদ ঘুচিল আমার।
পরের ধুঃখের কথা করিলে চিন্তন
আপনার মনে দুঃখ থাকে কতক্ষণ।

(খ) মহাসমুদ্রের শত বৎসরের কল্লোল কেহ যদি এমন করিয়া বাঁধিয়া রাখিতে
পারিত যে, সে ঘুমাইয়া পড়া শিশুটির মতো চুপ করিয়া থাকিত, তবে
সেই নীরব মহাশব্দের সহিত এই লাইব্রেরির তুলনা হইত। এখানে ভাষা
চুপ করিয়া আছে, প্রবাহ স্থির হইয়া আছে, মানবাত্মার অমর আলোক
কালো অক্ষরের শৃঙ্খলে কাগজের কারাগারে বাঁধা পড়িয়া আছে।
ইহারা সহসা যদি বিদ্রোহী হইয়া উঠে, নিস্তব্ধতা ভাঙ্গিয়া ফেলে অক্ষরের বেড়া
দগ্ধ করিয়া আছে, প্রবাহ স্থির হইয়া আছে, মানবাত্মার অমর আলোক
কঠিন বরফের মধ্যে যেমন কত কত বন্যা বাঁধা আছে, তেমনি এই
লাইব্রেরির মধ্যে মানব হৃদয়ের বন্যা কে বাঁধিয়া রাখিয়াছে।

 

4. অতি সংক্ষেপে নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর লিখুনঃ- ১৫x২= ৩০

(ক) চর্যাপদ কে আবিষ্কার করেন?
(খ) বাংলা গদ্যের জনক কে?
(গ) প্রাবন্ধিক হিসেবে হুমায়ুন আজাদের কৃতিত্ব আলোচনা করুন।
(ঘ) রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত তিনটি ছোটগল্পের নাম লিখুন।
(ঙ) বড়ৃচণ্ডীদাস রচিত কাব্যটির নাম লিখুন।
(চ) তিনটি মঙ্গল কাব্যের নাম লিখুন।
(ছ) ‘অবসরের গান’ কবিতাটি কার রচনা?
(জ) মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের তিনটি উপন্যাসের নাম লিখুন।
(ঝ) ভাষা আন্দোলনভিত্তিক দুটি কবিতার নাম লিখুন।
(ঞ) মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক তিনটি উপন্যাসের নাম লিখুন।
(ট) বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী সম্পর্কে তিনটি বাক্য রচনা করুন।
(ঠ) বাংলাদেশের তিনজন বিশিষ্ট নাট্যকারের নাম লিখুন।
(ড) বাংলা সাহিত্যের তিনজন শ্রেষ্ঠ উপন্যাসিকের নাম লিখুন।
(ঢ) বৈষ্ণব পদাবলির তিনজন শ্রেষ্ট পদকর্তার নাম লিখুন।
(ণ) কোন তিন কবির নাম যথাক্রমে কবিকণ্ঠহার, কবিকঙ্কন ও রায়গুণাকর।